1. mj.fakir1984@yahoo.com : Jahangir Hossain : Jahangir Hossain
  2. rubelmadbor786@gmail.com : Rubel Madbar : Rubel Madbar
  3. msalamc@gmail.com : superadmin :
শনিবার, ০৮ অগাস্ট ২০২০, ০৫:৩২ পূর্বাহ্ন

জমিতে বালু ভরাট করতে গিয়ে হামলার শিকার॥ উভয় পক্ষের আহত ৭জন

স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট সময় বুধবার, ১৫ জুলাই, ২০২০
  • ৮১ বার পড়া হয়েছে

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে উভয় পক্ষের ৭জন আহত হয়েছে। সদর থানায় পাল্টা পাল্টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। দুটি অভিযোগে ৪ জন করে উভয় পক্ষের মোট ৮জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। ঘটনা ঘটে বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার সময়। মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে জরুরী বিভাগ সূত্রে জানা যায় মৃত মোহাম্মদ মিঝির স্ত্রী রেনু বেগম (৬০), কাঞ্চন বেগম (৩৫), মৌসুমী (২৮),মারিয়া আক্তার (১৭), শাহরিয়ার (১০),মো.মাসুদ রানা (৪৫), শামসুদ্দিন শেখ (৬৫),আলম শেখ (৪৫) মোট ৮ জন আহত হন। এদের মধ্যে রেনু বেগম গুরুতর আহত হন। এদের মধ্যে আলম শেখ ও রেনু বেগমই সবচেয়ে গুরুতর জখম হয়। বালু ফেলাকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। মজনু মিজি তার ৯শতাংশ জায়গার মধ্যে বুধবার সকাল ১০টায় বালু ফেলছিলেন। সেই বালু আলম শেখের জায়গায় গিয়ে কিছু পরে।

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড ছোট কাটাখালী মুন্সীগঞ্জ কলেজের উত্তর পার্শ্বে মাটি ভরাটকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংর্ঘষে আট জন আহত। গতকাল বুধবার সকাল ৯ টার দিকে এই সংর্ঘষ বাধে।

সরেজমিন দেখা গেছে, জমির সীমানা এলাকা মাটি ভরাট কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংর্ঘষ বাঁধে। সংর্ঘষের বিষয় মজনু মিঝি জানান, আমি আমার যায়গায় মাটি ভরাট করছি। শামসুদ্দিন শেখরা আমাদের উপর কাঠের ডাসা, বাঁশ দিয়ে হামলা চালায়।

আরো জানান, বাড়ির মহিলাদের কাপড় চোপড়া ছিঁড়ে ফালায়। সংর্ঘষের বিষয় শামসুদ্দিন শেখের ছোট ছেলের বউ শান্তি বেগম বলেন, সীমানা থাকার পরও মজনু মিঝিরা আমাদের জায়গায় মাটি ফেলছে। আমার শশুর ও ভাসুর কে মেরে আহত করে।

মজনু মিজি জানান, আলম শেখের বাড়ির উপর দিয়ে মজনু মিজির পরিবারকে যেতে হয়। মজনু মিজির ক্রয়কৃত সোয়া ৪ শতাংশ জায়গা আলম শেখের কাছেই বিক্রি করে দিয়েছে। আলম শেখ ক্রয়কৃত জায়গার চেয়ে বেশী দখল করে ওয়াল করেছেন। বিবাধ বাধলে আলী আজম ঢালীর সাথে হওয়ার কথা কিন্তু স্থানীয় মেম্বার বালু ফেলতে বলার পরে আমরা বালু ফেলেছি। আলম শেখের জায়গায় একটু বালু পরেছে। সেই বালু উঠিয়ে নেয়ার কথা বলেছি। কিন্তু আমার বোন আসার পরে আলম শেখ ও তার বাবা সামসু শেখ ঘর থেকে লাঠি নিয়ে এসে আঘাত করে আমার বোনের মাথা ফাটিয়ে দেয়। তাদের আঘাতে আমি, আমার মেয়ে, ছেলে, আমার দুই বোন আহত হই।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্থানীয় কাউন্সিলরের সাথে আলাপকালে জানা যায়, এডভোকেটের ঘোয়ার্তুমীর কারণে মজনু মিজি তার সর্বস্ব হারাচ্ছে। তার এখানে কোন সম্পত্তিই পাবে না। সিএস পর্চায় সিডু বিবি ৪ আনি সম্পত্তির মালিক হলেও মজনু মিজির জন্মের পূর্বেই তা বিক্রি করে দিয়েছে। এডভোকেটের ভুল গাইডলাইনের কারণে মজনুর তার সর্বস্ব হারাতে বসেছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ ১১ শতাংশ জায়গা মজনু মিজির ক্রয়কৃত সম্পত্তি আলম শেখ পিতা সুমসুদ্দিন শেখের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। এখন ৯.২৫ শতাংশ জায়গা দখল করে আছেন মজনু মিজি। তবে এই জায়গা নিয়ে আলম শেখের সাথে ঝগড়া বিবাদ হওয়ার কথা না। জায়গা যার তার সাথে ঝগড়া না হয়ে কেন আলম শেখ ও তার বাবা সামসুদ্দি শেখের সাথে সংঘর্ষ বাঁধবে। মজনু মিজি ও রেনু বেগমদের তাদের দখলকৃত জায়গা যেতে হলে আলম শেখের বাড়ির উপর দিয়েই যেতে হয়।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি আওলাদ হোসেন বেপারী জানান, মঙ্গলবার সকালে আমি উভয় পক্ষের সাথেই কথা বলে গিয়েছে। উভয় পক্ষই বলেছে কোন বিবাধ করবে না তারা। বুধবার সকালেও রেনু বেগম আমার বাড়িতে গিয়ে বলে এসেছে কেউ মারলেও তারা কারো সাথে ঝগড়া করবে না। কিন্তু এমন কি ঘটনা ঘটলো যে উভয় পক্ষের মধ্যে এমন সংঘর্ষ হামলা হলো যে উভয় পক্ষের লোকজন গুরুতর আহত হলো।

এ বিষয় মুন্সীগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আনিছুর রহমান বলেন, উভয় পক্ষ অভিযোগ দায়ের করেছেন। মুন্সীগঞ্জ থানা পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 Munshiganjcrime
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com