মুন্সীগঞ্জ এসপির উদ্যোগে শতভাগ স্বচ্ছতায় ২২৬ জনকে পুলিশে চাকরি

ঢাকা দেশজুড়ে মুন্সীগঞ্জ

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ পুলিশে ট্র্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে মুন্সীগঞ্জে শতভাগ স্বচ্ছতায় ২২৬ জন নারী ও পুরুষকে পুলিশে চাকরি দেওয়া হয়েছে। শারীরিক মাপ, লিখিত পরীক্ষা ও মৌখিক পরীক্ষা শেষে চুড়ান্ত পরীক্ষায় ২২৬ জনকে নির্বাচিত করেন জেলা পুলিশ সুপারসহ অনান্য কর্মকর্তারা।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বেলা ১১টায় মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যলয়ের সভা কক্ষে প্রেস ব্রিফিং করে ২০১৯ এর চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম (পিপিএম) বার।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার বলেন, বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টেবল পদে মেধাবী ও যোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগে জেলা পুলিশ প্রয়োজনীয় সকল ধরণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। এ জেলায় পুলিশ কঠোর নিয়ামানুবর্তীতা ও স্বচ্ছতা বজায় রেখে মেধাবী-যোগ্য প্রার্থী নির্বাচনে শতভাগ সফলতা অর্জন করেছে।

বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী আবারো প্রমাণ করেছে, তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে বদ্ধপরিকর ও বাংলাদেশ পুলিশ রক্তের ঋণ শোধ করতে দেশ প্রেমের মহান ব্রত নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, শতভাগ স্বচ্ছতার মধ্যে মেধাবী ও যোগ্য প্রার্থীদের বাছাই করতে শারিরিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা  গ্রহণে কোন প্রকার অনিয়ম, স্বেচ্চারিতা এবং অপশক্তির প্রয়োগ হয়নি। যারা চুড়ান্তভাবে নির্বাচিত হয়েছেন, তারা প্রকৃতভাবে মেধাবী ও যোগ্য।

নিয়োগ পাওয়াদের অনেকেই এসময় উপস্থিত ছিলেন, তাদের উদ্দেশে এসপি বলেন- যথাযথ প্রশিক্ষণ শেষে কর্মে যোগ দিয়ে দেশ মাতৃকার সেবায় জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবে।

এসময় পুলিশ সুপার বলেন- মাত্র ১০০ টাকার বিনিময়ে এবার মুন্সীগঞ্জে ২২৬ জনকে পুলিশে চাকুরি দেয়া হয়েছে এবং ১০০ টাকায় পুলিশে চাকুরি এই প্রস্তাবটা আমিই প্রথমে তুলি। এই চাকুরি দেয়ার ক্ষেত্রে কারও কোন তদবির গ্রহণ করা হয়নি। ২২৬ জনকে চাকুরি দেয়া হলেও মাঠে নিয়োগে প্রার্থী ছিল সহস্রাধিক।

গত ২৪ জুন নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে বিভিন্ন ধাপে শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে যাচাই-বাছাই করে ২৯ জুন যোগ্য এবং মেধাবী প্রার্থীদের নির্বাচিত করা হয়।

তিনি আরো জানান, নির্বাচিত ২২৬ জনের মধ্যে সাধারণ পুরুষ ১৭১ জন, সাধারণ নারী ৪২ জন, পুরুষ মুক্তিযোদ্ধা কোঠায় ১০ জন, পুলিশ পৌষ্য পুরুষ ২ জন, আনসার ১ জন। এবার চূড়ান্ত পর্যায়ে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তাদের বেশিরভাগই হতদরিদ্র, দিনমজুর, চা বিক্রেতার সন্তান। নির্বাচিতদের মধ্যে যাদের বাবা মা নেই এতিম এমন ৩৩ জন টিআরসি পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান, ডিআই-১ প্রাণবন্ধু বিশ্বাস, ডিবি ওসি এস এম আলমগীর হোসেন, সদর থানার ওসি (তদন্ত) গাজী সালাউদ্দিনসহ সদ্য নিয়োগ প্রাপ্তদের অভিবাবক ও সাংবাদিকরা।

2 thoughts on “মুন্সীগঞ্জ এসপির উদ্যোগে শতভাগ স্বচ্ছতায় ২২৬ জনকে পুলিশে চাকরি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *